টিলা কাটার দায়ে আলোচিত সেই অজিত তালুকদারের ৩৩ লাখ টাকা জরিমানা।

326

নিজস্ব প্রতিবেদক : মঙ্গলবার (২৭শে আগস্ট) টিলা কাটার দায়ে সিলেট নগরীর জালালাবাদ থানা এলাকাধীন ব্রাহ্মণশাসন এলাকায় অজিত তালুকদার নামে এক ব্যক্তিকে ৩৩ লাখ ২৭হাজার টাকা জরিমানা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর। সোমবার পরিবেশ অধিদপ্তরের মনিটরিং অ্যান্ড এনফোর্সমেন্ট দপ্তর এ জরিমানা করে। একই সঙ্গে ৫টি ইটভাটা, ১০ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে মোট ৫৩ লাখ ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সোমবার সন্ধ্যায় এ তথ্য জানিয়েছে পরিবেশ অধিদপ্তরের মনিটরিং অ্যান্ড এনফোর্সমেন্ট দপ্তর। এ ছাড়া মনিটরিং ও এনফোর্সমেন্ট দপ্তরের পক্ষে পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সালমান চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এনফোর্সমেন্ট দপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পরিবেশদূষণের দায়ে ময়মনসিংহের ৫টি ইটভাটাসহ ঢাকা, সিলেট, বাগেরহাট এবং গাজীপুরের ১০টি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে জরিমানা করেন পরিবেশ অধিদপ্তরের মনিটরিং অ্যান্ড এনফোর্সমেন্ট উইংয়ের পরিচালক। এর মধ্যে সিলেট মহানগরের জালালাবাদ থানা এলাকার ব্রাহ্মণশাসন মৌজায় অবৈধভাবে টিলা কাটার অপরাধে অজিত তালুকদারকে ৩৩ লাখ ২৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, পরিবেশগত ছাড়পত্র না নিয়ে অবৈধভাবে ইটভাটা চালানোর দায়ে ময়মনসিংহ জেলার গৌরীপুর উপজেলার মেসার্স আয়েশা ব্রিকস, মেসার্স শাফায়েত ব্রিকস, মেসার্স তানিয়া ব্রিকস, মেসার্স শাপলা ব্রিকস ও মেসার্স এনজিএম ব্রিকসকে মোট ১০ লাখ ৫ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়েছে। তরল বর্জ্য পরিশোধনাগার (ইটিপি) নির্মাণ না করে এবং পরিবেশগত ছাড়পত্র না নিয়ে কারখানা পরিচালনা করার অপরাধে গাজীপুরের টঙ্গীর আদি করপোরেশনকে ৩ লাখ ৩৭ হাজার ৪৪০ টাকা, গ্রিন টার্চকে ৪ লাখ ৩৭ হাজার ২৪০ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়েছে। উপযুক্ত মানসম্পন্ন না হওয়ায় একটি সিমেন্ট কারখানা ও একটি ওষুধ উৎপাদন প্রতিষ্ঠানকে যথাক্রমে ১ লাখ ৯৯ হাজার ২৯৬ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক ইশরাত জাহান বলেন, ক্ষতিপূরণের অর্থ যদি তাৎক্ষণিকভাবে পরিশোধ করা না হয়, তখন বিষয়টি সংশ্লিষ্ট এলাকার পরিবেশ অধিদপ্তরকে জানানো হয়। এ বিষয়ে হয়তো মঙ্গলবার পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়কে জানানো হবে।