সৌদি আরবের দাম্মামের কোবাশহরে নিপা বেগম নামের বাংলাদেশীর বাঁচার জন্য ফেইসবুক লাইভে আকুতি

671

সৌদি আরবের দাম্মামের কোবাশহরে গৃহকর্তীর নির্যাতন থেকে নিপা বেগম নামের বাংলাদেশী গৃহকর্মীর বাঁচার জন্য ফেইসবুক লাইভে আকুতি
বাংলাদেশের নরসিংদি জেলার শিবপুর উপজেলার কারার চর গ্রামের খলিল মিয়া ও খুরশেদা বেগমের কলেজ পড়ুয়া মেয়ে নীপা বেগম এবার সৌদি আরবের দাম্মাম শহরের আলখাবজির জোহরা রোডের দাজ্জাল ওসমানের স্ত্রীর বন্দিখানার নির্যাতন সেল থেকে দেশে ফেরার আকুতি জানিয়ে ফেইসবুক লাইভ ভিডিওতে ছদ্ধনামে আইডি থেকে আকুল আবেদন জানিয়েছেন ।
গত ১৫ ই জানুয়ারী তাহার ছদ্মনামে প্রকাশিত ফেইসবুক আইডি হতে সৌদির দাম্মামের কপিল ওসমানের আলকাবজির যোহরা রোড়ের বাসা থেকে উদ্ধারের আবেদন জানিয়েছেন ।
নরসিংদী জেলার শিবপুর উপজেলার কারারচর গ্রামের গরীব খলিল মিয়া ও খুরশেদা বেগমের মেয়ে নিপা বেগম পিতার অভাব অনটন দুর করতে গাজিপুর জেলার কালীগঞ্জের সৌদি প্রবাসী দুলাল মিয়া নামক এক দালালের মধ্যমে জমিজমা বিক্রি করে পিতার স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে আনতে ২ লক্ষ টাকা পরিষোধে আজ থেকে দেড় বৎসর পুর্বে সৌদি আরবে যান , এবং তথায় দাম্মাম শহরের আলখাবজির যোহরা রোড়ের মোহাম্মদ ওসমান নামক এক সৌদির বাসায় গৃহপরিচারিকার চাকুরী করিতে থাকেন , সেখানে যাওয়ার পর গৃহকর্তীর নির্যাতন ও সকল প্রকার যন্ত্রনা সহ্য করে কাজ করিতে থাকেন ! কোন ধরনের অসুখ বিসুখের সময় ও তাহাকে কোন সুচিকিতসা না দিয়ে গৃহে বন্ধি রেখে অমানুষিক যন্ত্রনা দিতে থাকে ! নিপা বেগমকে সৌদিতে নিয়া উক্ত দালাল কপিলের হাতে সমর্পন করে চলে গেলেও বেশ কিছুদিন ফোনে যোগাযোগ করত কিন্তু আজ বেশ কয়কমাস যাবত তাহার ফোন ব্লক করে সে চম্পট দিয়ে কোথায় চলে গেছে যা কারো জানা নেই । বর্তমানে নিপা বেগম অসুস্হ হয়ে কপিলের বাসায় শয্যাশায়ী । সে ঐ বাসা থেকে উদ্ধার করে দেশে আসার জন্য অন্য এক Fb আইডির লাইভ মাধ্যমে আবেদন করিতেছে এবং বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রী বরাবরে আকুল আবেদন জানান !