করোনা মোকাবিলায় অ্যাপল-গুগলের যৌথ নজরদারি

369
{"source_sid":"C5E16D61-51FD-4781-A7FD-27D0AEB687B9_1586601976494","subsource":"done_button","uid":"C5E16D61-51FD-4781-A7FD-27D0AEB687B9_1586601976444","source":"other","origin":"unknown"}

এবার করোনাভাইরাস মোকাবিলায় এগিয়ে এলো অ্যাপল-গুগল।  জোটবদ্ধ হয়ে ট্র্যাকিং সিস্টেম বা নজদারির একটি পদ্ধতি তৈরি করছে বিশ্বের এই দুই বৃহৎ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠান দু’টি ব্লু টুথ প্রযুক্তির মাধ্যমে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি এবং আক্রান্ত ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে কারা কারা এসেছিলেন তা শনাক্ত করবে।

শনাক্তকরণ প্রক্রিয়া শেষে রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে সে তথ্য সরবরাহ করা হবে। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের এ প্রতিষ্ঠান দু’টি এমন ঘোষণা দিয়েছে বলে জানায় দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস। 

অ্যাপল ও গুগলের যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, যৌথ প্রচেষ্টায় যে সিস্টেম তৈরি হচ্ছে তা ব্লুটুথ প্রযুক্তিনির্ভর। এতে সরকার ও স্বাস্থ্য সেবাদাতা সংস্থাগুলোর পক্ষে করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া যাবে। ব্যবহারকারীর প্রাইভেসি ও অন্য নিরাপত্তাব্যবস্থাও ঠিক থাকবে। এতে যুক্ত থাকবে অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিং ইন্টারফেস (এপিআই) ও অপারেটিং সিস্টেম-লেভেল প্রযুক্তি। যা কন্টাক্ট শনাক্তকরণ সহজ করবে। স্বাস্থ্যকর্মীরা বিশেষ অ্যাপের সাহায্যে তা নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য ভার্জ বলছে, কন্টাক্ট ট্রেসিং বা করোনাভাইরাস রোগীর সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের খুঁজে বের করা গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, সংস্পর্শে আসা ওই ব্যক্তির কাছ থেকে অন্যরা সংক্রমিত হতে পারেন। তাই তাকে খুঁজে বের করতে এ ধরনের প্রোগ্রাম গুরুত্বপূর্ণ।

গুগলের সিইও সুন্দর পিচাই টূইটারে একটি পোষ্ট করেছেন। তিনি এ বিষয়টি নিয়ে বেশ আশাবাদী। 

বিশ্বের অধিকাংশ স্মার্ট ফোন ব্যবহারকারী যেহেতু অ্যাপলের তৈরি আইফোন ও গুগলের অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহার করেন, এজন্য প্রতিষ্ঠান দু’টি যৌথ প্রচেষ্টা কাজে দেবে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।