রাজনীতি না ওয়াশিং মেশিন ?

401

হাফিজ লুদি’যুক্তরাষ্ট্র:- মানুষের বেশ, আঁকার, রুপ, মযার্দা, সম্মান, অসম্মান, রাজাকার, মুক্তিযুদ্ধা সবই তকমা এনে দিতে পারে এই একটি মাধ্যম।

যার হাত যতো লম্বা উনি ই সব চেয়ে বড় মুক্তিযুদ্ধা। আমরা দেখেছি এর কোন সচ্ছতা বা জবাব দিহিতার দরকার হয় নাহ।
শুধু টাইটেল বা ট্যাগ লাগালেই হয়ে যায়।

আবার আমরা শুনেছি বা দেখছি কর্নেল মুক্তিযুদ্ধের মহা-সমরনায়ক বঙ্গবীর জেনারেল ওসমানীকে ও কজন মানুষ শরণ করতে বা মনে রাখতে।কর্নেল ওসমানী পরিসদ পর্যন্ত সিমাবদ্ধ।

আমাদের বিয়ানীবাজার এখন মুক্তিযাদ্ধা সনদের কারখানা।কার অতীত কি সবার জানা ।কে কোথা থেকে এসেছেন.কখন দল পরিবর্তন করেছেন।কে কমিউনিস্ট. কে রাজাকার.কে আলবদর.কে জামাত.কে বিএনপি. কাহার ও অজানা বা অগোচরে নেই ।তার পরও মরিয়া সবাই ট্যাগ লাগাতে। অথচ এই বিয়ানীবাজারে রিয়েল মুক্তিযাদ্ধাদের অবাব নেই।না আছে তাঁদের বা উনাদের পরিবারের কোন সম্মান বা উনাদের কোন পদ পদবী। শুধু সরকারি ভাতাই উনাদের ট্যাগ।নিরবে উনারা তা পেয়েই সন্তুষ্ট বা তৃপ্ত।

কেনো যানি আমার কাছে সব সময় এটাই উপলব্ধি হয়।আমরা চোরকে চোর.ডাকাত কে ডাকাত.ভালো মানুষদেরকে ভালো মানুষ বলা বা সব কিছু ক্ষমতার কাছে বিক্রি হয়ে গেছে ।সমাজে যাহারা বিত্তবান বা ক্ষমতাধর তাদের কাছে আমরা মাথানত করে চলতেই হবে ।আমরা কেনো মানুষকে মানুষ হিসাবে দেখিনাহ।আমরা এই রীতি বা পূজা করা বন্ধ করতে চাই ।রাজনীতি যেনো হয় মানুষের কল্লানে । কাহার ট্যাগ বা সার্টিফিকেট বিক্রির জন্য নয় ।