সিলেটে লাশের গাড়িতে নাকি পুলিশের চাঁদাবাজি!

248

সাত্তার আজাদ :: মানুষ মরে গেলে মৃতদেহের প্রতি সহানুভূতি জাগে সকল জীবিতদের। কিন্তু মৃত মানুষ বহন করতে সহানুভূতি ব্যতিরেখে সেই গাড়িতেও চাঁদাবাজির অভিযোগ ওঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহত্তর সিলেটের মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে। লাশবাহী গাড়ি আটকিয়ে হাইওয়ে পুলিশের চাঁদাবাজির প্রতিবাদে সাড়ে তিন ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে রাখে পরিবহন শ্রমিকরা। আজ শনিবার সকালের ঘটনা। 

সকাল সাড়ে ১০টায় সিলেট থেকে শ্রীমঙ্গলগামী একটি লাশবাহী পিকআপভ্যানকে ঢাকা-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের বিলাসেরপাড় নামক স্থানে কাগজপত্র চেকিং করতে থামান হাইওয়ে পুলিশের সাতগাঁও ফাঁড়ির ইনচার্জ নান্নু মন্ডল। ট্রাক ও ট্যাংক লরি শ্রমিক ইউনিয়ন শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক শাহাজান মিয়া বলেন, নান্নু মন্ডলের নৈরাজ্য মাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। আজ উনি যা করেছেন তা অমানবিক। আমরা এর তদন্ত সাপেক্ষে সুষ্ঠু বিচার চাই।

শ্রমিকরা জানান, সেখানে ওই গাড়ির ড্রাইভারের কাছ থেকে পুলিশ নিয়ম বহির্ভূতভাবে চাঁদা দাবি করে এবং লাশবাহী গাড়িটি আটকে রাখে। এর প্রতিবাদে শ্রমিকরা সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে রাখেন। এতে ঢাকা-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের প্রায় পাঁচ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুস ছালেক এর আশ্বাসের প্রেক্ষিতে শ্রমিকরা অবরোধ তুলে নেন। ওসি জানান, শ্রমিকদের অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখে উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ব্যবস্থা নিবেন। আর অভিযোগ অস্বীকার করে হাইওয়ে পুলিশ সাঁতগাও ফাঁড়ির ইনচার্জ নান্নু মন্ডল বলেন, আমার উপর ভিত্তিহীন অভিযোগ আনা হয়েছে।